Header Ads

করোনা প্রাণ নিল বিশ্বে ২০ লাখ মানুষের


এক বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও বিশ্বে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু কমছে না।ইতিমধ্যে বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯ কোটি ৩৫ লাখ ছাড়িয়েছে। আর এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ২০ লাখের বেশি মানুষ মারা গেছেন।

মহামারির শুরু থেকে বিশ্বের সব দেশ ও অঞ্চলের করোনা সংক্রমণের হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণ করছে ওয়ার্ল্ডোমিটারস নামের একটি ওয়েবসাইট। তার সর্বশেষ তথ্য বলছে, আজ শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা নাগাদ বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯ কোটি ৩৫ লাখ ৩৩ হাজার ৪৭১। একই সময় নাগাদ বিশ্বে করোনায় মোট মারা গেছেন ২০ লাখ ২ হাজার ৪০৭ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের সর্বশেষ তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনা থেকে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৬ কোটি ৬৮ লাখ ১২ হাজার ৬২৩।বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৩৮ লাখ ৪৮ হাজার ৪১০। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯৯৪ জন।ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। ভারতে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৫ লাখ ২৮ হাজার ৫০৮। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৫১ হাজার ৯৫৪ জন।

ব্রাজিল আছে তৃতীয় অবস্থানে। ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৮৩ লাখ ২৬ হাজার ১১৫। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৭ হাজার ১৬০ জন।তালিকায় রাশিয়ার অবস্থান চতুর্থ। যুক্তরাজ্য পঞ্চম। ফ্রান্স ষষ্ঠ। তুরস্ক সপ্তম। ইতালি অষ্টম। স্পেন নবম। জার্মানি দশম। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৮তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি।গত বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে।করোনার প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের ৩০ জানুয়ারি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে।গত বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট রোগের নামকরণ করে ‘কোভিড-১৯’।গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।


বাংলাদেশ পরিস্থিতি

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গতকাল বৃহস্পতিবারের তথ্য অনুযায়ী, দেশে মোট ৫ লাখ ২৫ হাজার ৭২৩ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৭ হাজার ৮৪৯ জন মারা গেছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৭০ হাজার ৪০৫ জন।

মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বিবেচনায় দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আর সুস্থ হওয়ার হার ৮৯ দশমিক ৪৮ শতাংশ।বাংলাদেশে প্রথম সংক্রমণ শনাক্তের কথা জানানো হয় গত বছরের ৮ মার্চ। প্রথম মৃত্যুর তথ্য জানানো হয় গত বছরের ১৮ মার্চ।

Powered by Blogger.